কুমিল্লা

কুমিল্লায় ম্যাজিক প্যারাডাইস পার্কে গিয়ে শিশুর মৃ’ত্যু

৩১ জানুয়ারি ২০২০, আজকের মেঘনা ডটকম,

ডেস্ক রিপোর্ট ● লক্ষ্মীপুর থেকে বনভোজনে কুমিল্লার ম্যাজিক প্যারাডাইসে পার্কে গিয়ে স্থানীয় ইলেভেন কেয়ার একাডেমির ছাত্রী ফৌজিয়া আফরিন সামিয়ার মৃ’ত্যু হয়েছে।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে নি’হতের স্বজনসহ স্থানীয়রা ওই শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের আঙিনায় ভিড় করেন। বৃহস্পতিবার রাতে অন্য সহপাঠী ও শিক্ষকরা তার ম’রদেহ নিয়ে ফিরে আসেন।

এর আগে ম্যাজিক প্যারাডাইসে পার্কে তার ম’রদেহ পাওয়া যায়। এদিকে মৃ’ত্যুর সুনির্দিষ্ট কারণ এখনো জানা যায়নি। তবে পরিবার বলছে তাকে হ’ত্যা করা হয়েছে।

নি’হত আফরিন সামিউন ফৌজিয়া সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউপির বাসিন্দা গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে ও ইলেভেন কেয়ার একাডেমির দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

নি’হতের পিতা গিয়াস উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার সকালে ইলেভেন কেয়ার একাডেমির উদ্যোগে ৫০ জন ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে কুমিল্লার ম্যাজিক প্যারাডাইস পার্কে পিকনিকে যায়।

বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মেয়ের সঙ্গে মোবাইলে কথা হয়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে পিকনিক স্পট থেকে এক শিক্ষক ফোন করে তাকে জানান, পার্কের ভিতরে পুকুরে গোসলের সময় তার মেয়ে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়।

পরে তাকে কুমিল্লার একটি হাসপাতালে নিলে মৃ’ত্যু হয়। মেয়ের সঙ্গে কথা বলার ঘণ্টাখানেক পর মৃ’ত্যুর সংবাদ পেয়ে তা মানতে রাজি নন বাবা গিয়াস উদ্দিন ও মা কানিস ফাতেমা।

তিনি আরো জানান, মেয়েকে বনভোজনে যেতে দিতে না চাইলেও শিক্ষকরা জোর করে তাকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হ’ত্যা করেছেন। এ ঘটনার বি’চার দাবি করেন বাবা-মা।

নি’হতের মা কানিস ফাতেমা বলেন, আমার মেয়েকে ওরা খু’ন করেছে। সে পুকুরের পানিতে ডুবে ম’রে নাই। একপর্যায়ে তিনি বাকরু’দ্ধ হয়ে পড়েন।

এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ক’র্তৃপক্ষের অ’সচেতনতা ও গাফলতিকে দায়ী করেন সচেতন মহল। একই সঙ্গে পার্ক ও শিক্ষার নামে গড়ে উঠা এ সব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ব’ন্ধের দাবি জানান তারা।

প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন জানান, পার্কের ভিতরে পুকুরে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে যায় সে। পরে খবর পেয়ে তাকে উ’দ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন।

লক্ষ্মীপুর সদর ইউএনও শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল জানান, পিকনিকে গিয়ে ছাত্রীর মৃত্যুর বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে এ ব্যাপারে ম্যাজিক প্যারাডাইসে পার্কের কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close