সম্পাদকীয়

৩ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক নির্মানে মেঘনা উপজেলা হতে পারে কুমিল্লা জেলা উত্তরের টার্নিং পয়েন্ট

৩ অক্টোবর ২০২০, আজকের মেঘনা ডটকম,   এমরান হোসেন আকাশ :

ভৌগলিক অবস্থানের দিক দিয়ে কুমিল্লা জেলার সর্বোত্তরে অবস্থিত মেঘনা উপজেলা।
রাজধানী ঢাকা জিরো পয়েন্ট থেকে মেঘনা উপজেলা সদরের দূরত্ব মাত্র ৪২ কিলোমিটার।
আর মেঘনা উপজেলার প্রবেশধার মাত্র ৩৪ কিলোমিটার।
ঢাকা – চট্টগ্রাম মহাসড়কের ভাটেরচর (গজারিয়া) হইতে ১০০ গজ পূর্বদিকে প্রবেশ করলেই মেঘনা উপজেলা শুরু।
ভৌগোলিক অবস্থানের দিক থেকে এই উপজেলার গুরুত্ব অত্যাধিক। এই উপজেলায় দুটি অর্থনৈতিক শিল্পাঞ্চলের কাজ চলমান, বাংলাদেশ ট্রাফিক পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারের কাজ প্রক্রিয়াধীন, সরকারি অফিসারদের নিজস্ব অর্থায়নে চলছে শ্যামলিমা আবাসিক প্রকল্পের কাজ। আরো ছোট বড় কলকারখানার জন্য ইতিমধ্যেই অনেক জমি ক্রয় বিক্রয় হয়েছে, সব মিলিয়ে এক সম্ভাবনার উজ্জলতার ধারপ্রান্তে মেঘনা উপজেলা।

কুমিল্লা জেলার হোমনা, তিতাস, মুরাদনগর, ব্রাম্মনপাড়া, ও ব্রাক্ষনবড়ীয়ার বাঞ্চারামপুর উপজেলায় যাতায়াতের অন্যতম রাস্তা হতে পারে এই পথটি, যার প্রবেশধার হবে মেঘনা উপজেলা।

কিন্তু দুঃখের বিষয় ভাটেরচর – মেঘনা হোমনা সড়কটি শুরুতেই আঁকাবাকা হয়ে গিয়েছে।
বিশেষ করে মুক্তিনগর বাজারে রাস্তা অত্যান্ত সরু ও বাকা হওয়ায় যানচলাচলে বিড়াট সমস্যার সম্মোক্ষিন হচ্ছে, এমনকি হাটের দিনে ঘন্টার পর ঘন্টা যানজটে আটকে থাকে অনেক যানবাহন।

সে কারনে হোমনা, মুরাদনগর, বাঞ্চারামপুরের লোকেরা এই পথটি ব্যবহার করতে সাচ্ছন্দ বোধ করেননা।
তারা পুর্বের ন্যয় গৌরিপুর, ইলিয়টগঞ্জ হয়েই চলা ফেরা করেন।
এমনকি মেঘনা উপজেলার পূর্রদিকের বাসিন্দারা ও উপজেলা সদরে বা রাজধানীতে আসতে মুক্তিনগর বাজারের যানজটের কবলে পড়ে দীর্ঘ সময় নষ্ট করে।

তাই মেঘনা উপজেলা ও কুমিল্লা জেলার এল জি ই ডি অফিসের যথাযথ কর্তৃপক্ষ সড়কটি মেঘনা উপজেলার টি এন্ড টি মোড় থেকে কাশিপুর বাজার পর্যন্ত ৩ (তিন) কিলোমিটার বাইপাস সড়ক করে দিলে জনগনের যাতায়াতের ক্ষেত্রে এক নতুন দিগন্তের সূচনা হবে।
এবং মেঘনা উপজেলা হবে কুমিল্লা উত্তরের সবচেয়ে বড় টানিং পয়েন্ট।

আমি মাননীয় এমপি মহোদয় জনাব মেজর জেনারেল সুবিদ আলি ভূইয়া,
উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাইফুল্লাহ মিয়া রতন শিকদার,
মেঘনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,
জেলা পরিষদ সদস্য নাসির উদ্দিন শিশির, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান,
মেঘনা উপজেলা এল জি ই ডি ইঞ্জিনিয়ার,
মানিকারচর ইউ,পি চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ,
গোবিন্দপুর ইউ,পি চেয়ারম্যান মাইনুদ্দীন মুন্সী তপন
সহ সংশিষ্ট সকলকে বিষয়টি আমলে নেওয়ার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি।

লেখক,

এমরান হোসেন আকাশ-, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, মেঘনা উপজেলা আওয়ামিলী।।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close