জাতীয়

বসলো পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৫ কিলোমিটারের অধিক

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান বসেছে আজ শনিবার। সেতুর মাওয়া প্রান্তে ৮ ও ৯ নম্বর পিলারের উপর স্প্যান ২-বি বসানোর ফলে দৃশ্যমান হলো সেতুর ৫ হাজার ২৫০ মিটার।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প ব্যবস্থাপক (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের।

তিনি জানান, পূর্বনির্ধারিত সিডিউল অনুযায়ী শুক্রবার স্প্যানটি বসানোর পরিকল্পনা ছিলো। পদ্মা নদীতে চর পড়ে নাব্য সংকট সৃষ্টি হওয়ায় শুক্রবার স্প্যানটি বসানো যায়নি। তবে আজ শনিবার দুপুরে ৮ ও ৯ নম্বর পিলারের উপর স্প্যানটি বসানো হয়েছে। এতে দৃশ্যমান হয়েছে মূল সেতুর ৫ হাজার ২৫০ মিটার।

জানা গেছে, ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ২-বি স্প্যান নিয়ে মুন্সিগঞ্জের মাওয়ার কুমারভোগে অবস্থিত কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের স্টিল ট্রাস জেটি থেকে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই রওনা দেয় শনিবার সকালে। রওনা দেয়ার ৩০ মিনিট পরই সেটা কাঙ্ক্ষিত পিলারের কাছে পৌঁছে যায়।

প্রকৌশলীরা জানান, ডিসেম্বরের ১০ তারিখের মধ্যে বাকি স্প্যান ছয়টি বসানো হবে। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে দ্বিতল ৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এই সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ২০২১ সালের জুন মাসে কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। আগামী ডিসেম্বরে স্প্যান বসানো শেষ হলেও স্ল্যাব বসানো, গ্যাস সংযোগ, রেল লাইন সংযোগের কাজসহ আরো কাজ বাকি। বিভিন্ন কারণে সেতুর কাজ শেষ হতে কিছু দিন সময় বেশি লাগবে।

চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড (এমবিইসি) মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে। নদী শাসনের কাজ করছে চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো কর্পোরেশন। সংযোগ সড়ক নির্মাণ করেছে বাংলাদেশের আবদুল মোনেম লিমিটেড।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close