আন্তর্জাতিক

আত্মহত্যা করতে গিয়ে গ্রহণ করলেন ‘ইসলাম ধর্ম

২১ এপ্রিল ২০২১,আজকের মেঘনা ডটকম, ডেস্ক রিপোর্ট :
প্রচন্ড্রকম মাদকাসক্ত ছিলেন তিনি। তা থেকেই হাতাশা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই হাতাশাই তাকে ইসলামের আলো দেখিয়েছে। তাই ইসলামের সুশীতল ছায়ায় এসেছে ৫৩ বছর বয়সী যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারোন ডেভিড স্নাইডার হয়ে গেছেন হারুন।

 

গত বছর আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন তিনি। তার বিশ্বাস শেষ মুহূর্তে ঐশ্বরিক এক ‘সংকেতের মাধ্যমে আল্লাহ তাকে আত্মহত্যা করতে বাধা দেন। এসময় তিনি জীবনের উদ্দেশ্য কি তা খোঁজার চেষ্টা করেন। সেই চেষ্টা থেকেই এক বছর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাসরত হারুন। এবারই প্রথম রোজা রাখছেন তিনি।

তিনি বলেন, আমি আমার ১৯ তলার ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে ছিলাম। আমি আত্মহত্যার চিন্তা করেছিলাম। তখন আমি ঈশ্বরের কাছে চিৎকার করে বলি, আমি তোমার কাছে আত্মসমর্পণ করি। আমি আমার মাদকাসক্তি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি না। তখন আমি আকাশের দিকে তাকাই এবং ঈশ্বরকে আবারও জিজ্ঞাসা করি সে আমাকে শুনতে পাচ্ছেন কিনা।

 

হঠাৎ করে আমার মধ্যে অদ্ভুত শিহরণ হয়। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে আকাশ আলোকিত হয়ে উঠে এবং আমি বিদ্যুৎ চমকানোর মতো তিনটি আলোর ঝলকানি দেখতে পাই। আমি ওয়েদার আপডেট দেখি, কোনও ঝড়ে সম্ভাবনা নেই। আমার বিশ্বাস হয় যে ঈশ্বর আমাকে বলেন যে, আমি আমার মাদকাসক্তি থেকে মুক্তি পাবো। আমি শান্ত অনুভব করি। এরপর আমি আর মদ স্পর্শ করিনি এবং আমার জীবনযাত্রা পুরোপুরি পাল্টে যায়।

 

হারুন বলেন, আমি জানি না কিভাবে আমি ইসলামকে খুঁজে পেয়েছি। তবে যখন আজান শুনতাম তখন আমার খুব শান্তি লাগতো। এরপর আমি একটি কুরআন তেলাওয়াতের অ্যাপ খুঁজে পাই সেটির সঙ্গে ইংরেজি সাবটাইটেল ছিল। কুরআন শুনলে আমি খুব শান্তি পেতাম। এটা আমার জন্য শান্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায় এবং মাদকাসক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে শক্তি খুঁজে পাই।

 

ইসলাম গ্রহণ করে এখন জীবনে প্রথমবারের মতো রোজা রাখছেন হারুন। কষ্টকর হলেও তিনি রোজা রাখছেন। আর সারাদিন যতটা সম্ভব ইসলাম নিয়ে পড়াশোনা করার চেষ্টা করছেন তিনি।

 

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close